বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১২:০৩ অপরাহ্ন
নোটিশ
Wellcome to our website...

রামুতে গভীর রাতে সাংবাদিকদের ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন ইউএনও প্রণয় চাকমা

রামু প্রতিনিধি/উখিয়া টুডে।।
আপডেট : শনিবার, ২৩ মে, ২০২০

 

গভীর রাতে রামুতে সাংবাদিকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ঈদ শুভেচ্ছা উপহার পৌঁছে দিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রণয় চাকমা। ২২ মে রাতে রামুর বিভিন্ন এলাকায় কর্মরত ৫০জনের অধিক সাংবাদিকদের মাঝে এ ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়।

ইউএনও প্রণয় চাকমা জানান, সৎ ও নীতিবান সাংবাদিকরা জাতির বিবেক। সাংবাদিক এবং প্রশাসন একে অপরের পরিপূরক।সাংবাদিকদের ইতিবাচক লেখনীয় মাধ্যমে প্রশাসনের সেবামুলক কর্মকান্ডগুলো পরিপূর্নতা পায় নিঃসন্দেহে। তিনি বলেন, দেশের ইতিবাচক ভাবমূর্তি সৃষ্টিতে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে করোনার শুরু থেকেই রামু উপজেলা প্রশাসনের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে রামু উপজেলার সাংবাদিকবৃন্দ কাজ করে যাচ্ছেন। জীবনের নিরাপত্তা ঝুঁকি নিয়ে প্রশাসনের পাশাপাশি সক্রিয় থেকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় ও করোনা ভাইরাসের সর্বশেষ পরিস্থিতি সম্পর্কে জনগণের মাঝে তুলে ধরেছেন। ভবিষ্যতেও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের এই যুদ্ধে রামুর সাংবাদিক এবং উপজেলা প্রশাসন একই সাথে পথ চলবে বলে আশা করি। সাংবাদিকদের এই ভূমিকার জন্য রামু উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান ইউএনও প্রণয় চাকমা।

উল্লেখ্য যে ইউএনও প্রণয় চাকমা রামুতে যোগদান করার পর থেকে একের পর এক সৃজনশীল কর্মকান্ডের জন্য প্রশংসিত হয়েছেন। যোগদানের শুরুতেই রামু চৌমুহনী স্টেশনের যানজড় নিরসনে ফুটপাত দখল উচ্ছেদ করে সর্বস্তরের মানুষের বাহবা ও আস্থা অর্জন করেন। পরবর্তীতে পাহাড় কাটা,অবৈধ ভাবে বালি উত্তোলন,বাল্য বিবাহ বন্ধসহ নানা অসংগতির বিরুদ্ধে তার অব্যাহত অভিযানের ফলে রামুর মানুষের মুখে মুখে প্রণয় চাকমার জয়ধ্বনী উচ্চারণ হয়।বিশেষ করে করোনা পরিস্থিতে করোনার ভয়াবহতা ও সচেতনতায় এবং কর্মহীন অসহায়দের মাঝে তার ত্রান তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মতো। তিনি তার নিঃস্বার্থ ও মানবিক কর্মকান্ডে রামুর সর্বস্তরে মানুষের অন্তরে পৌঁছে গেছেন। কোন সরকারী কর্মকর্তার জন্য এমনকি কোন জনপ্রতিনিধির জন্য রামুর মানুষের এরকম ভালবাসা অতিতে পরিলক্ষিত হয়নি। রামুর মানুষ এই মানবিক কর্মবীরকে আজীবন স্মরন রাখবে।

রামুর এক শিক্ষাবীদ জানান ইউএনও প্রণয় চাকমা একজন প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী। তিনি এই এলাকার বাসিন্দা নন, অথবা তিনি রামুতে ভোট করে জনপ্রতিনিধিও হবেন না। তিনি চাইলেই সরকারী দায়িত্ব দায়সারাভাবে পালন করে যেতে পারবেন। কিন্তু তিনি তা করেননি,তিনি সম্পুর্ন ভিন্ন চরিত্রের মানুষ, তিনি রামুর মানুষকে ভালবেসে আপন করে নিয়েছেন। এ এলাকার মানুষের দুঃখ সুখের সাথী হয়েছেন। রামুর মানুষের জন্য তার নিঃস্বার্থ মানবিক কর্মতৎপরতা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় ও অনুকরনীয়। রামুকে এগিয়ে নেওয়া এবং এলাকার সুষ্টু পরিবেশ বজায়ের স্বার্থে সর্বস্তরের জনসাধারনকে ইউএনও প্রণয় চাকমার মত একজন মানবিক কর্মবীরকে সহযোগীতা করা উচিত।

শেয়ার করুন::
error2
Tweet 20
fb-share-icon20


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর::