শিরোনাম::
আজ জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী তরুন ব্যবসায়ী জসিমকে হত্যা মামলা থেকে অব্যহতি চেয়ে মানববন্ধন এলাকাবাসী জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‌’উপজেলা প্রেসক্লাব উখয়ার কর্মসূচী মেজর সিনহা হত্যা মামলায় ৭ আসামি র‌্যাবের রিমান্ডে ১৫ আগষ্ট পালনে উখিয়ায় মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগের প্রস্তুতি সভা,দিনব্যাপী অনুষ্ঠান মালার সিদ্ধান্ত টেকনাফে মাদ্রাসাছাত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে বিএনপিতে খালেদাকে অবসরে ও জাইমাকে নেতৃত্বে আনার পরামর্শ টেকনাফ কেরুনতলী হতে ইয়াবাসহ আটক-১ চাঁদা না দেওয়ায় বালুখালীতে সিএনজি লাইনম্যানের উপর সন্ত্রাসী হামলা! বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ উদ্বোধন করল নয়াবাজার আদর্শ ঐক্য পরিষদ
শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন

টেকনাফের হ্নীলায় ঈদবাজার জমে উঠেছে, বেড়েছে যানজট ভোগান্তি

প্রতিবেদক::
আপডেট : শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০

ওমর ফারুক, টেকনাফ।।  কক্সবাজার জেলার সর্ব দক্ষিণের উপজেলা টেকনাফ। টেকনাফ উপজেলার অন্তর্গত ২নং ইউনিয়ন হ্নীলা। এই হ্নীলা বাজারটি দেখলে মনে হবে ব্যস্ততম রাজধানী ঢাকা। হ্নীলাবাজারে আসলে মনে হবে পৃথিবীতে করোনা মহামারির মতো কোনো ভাইরাস লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবন শেষ করে দিচ্ছে। বাংলাদেশে হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। মানুষ এই মহামারী কে অনেক হালকাভাবে নিয়েছে মনে হয় এই বাজারে আসলে। এক কথাই বলতে যেন পৃথিবীটা আগেরি মত আছে মনে হবে এরকম অবস্থা হ্নীলাবাজারের।

৩১ জুলাই, হ্নীলাবাজারে এসে দেখা যায়। কোন সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা হচ্ছে না। শতকরা হিসেবে হিসাব করলে শতকরা ৯৫ ভাগ মানুষের মুখে মাস্ক নেই। বিশেষ করে হ্নীলা বাজারে যানজটের অবস্থা অনেক খারাপ। এই ব্যাপারে কয়েকজন সাধারণ জনগণের সাথে কথা বলে জানা যায় হ্নীলা বাজারে এই অবস্থা লেগে থাকে প্রতিদিন। বিশেষ করে বিকালের সময়ে এই যানজটের অবস্থা ভয়াবহ অবস্থা ধারণ করে। এই যানজট কেন হচ্ছে বিষয়টি অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায় হ্নীলা বাজারে সকল ধরনের গাড়ি রাস্তার উপরই পার্কিং করা হয়। সে কারণে রাস্তায় সবসময় যানজট লেগেই থাকে। হ্নীলা পশ্চিম সিকদার পাড়া রাস্তার মাথা থেকে শুরু করে হ্নীলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত যানজট লেগেই থাকে।

হ্নীলাবাজারের শপিংমল গুলো ঘুরে দেখা যায়, কোন দোকানে ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলছে না। কোন ধরনের সরকারি নির্দেশনা ও মেনে চলতেছে না তারা। শপিংমল গুলোতে অনেক সাধারণ জনগণের ভীর দেখা গেছে। বিশেষ করে মহিলাদের উপস্থিতি অনেক বেশি।কোন দরণের করোনা রোগী যদি শপিং করতে আসে তাহলে অনেক বড় ক্ষতির সম্মুখীন হবে টেকনাফবাসি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর::