শিরোনাম::
আজ জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী তরুন ব্যবসায়ী জসিমকে হত্যা মামলা থেকে অব্যহতি চেয়ে মানববন্ধন এলাকাবাসী জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‌’উপজেলা প্রেসক্লাব উখয়ার কর্মসূচী মেজর সিনহা হত্যা মামলায় ৭ আসামি র‌্যাবের রিমান্ডে ১৫ আগষ্ট পালনে উখিয়ায় মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগের প্রস্তুতি সভা,দিনব্যাপী অনুষ্ঠান মালার সিদ্ধান্ত টেকনাফে মাদ্রাসাছাত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে বিএনপিতে খালেদাকে অবসরে ও জাইমাকে নেতৃত্বে আনার পরামর্শ টেকনাফ কেরুনতলী হতে ইয়াবাসহ আটক-১ চাঁদা না দেওয়ায় বালুখালীতে সিএনজি লাইনম্যানের উপর সন্ত্রাসী হামলা! বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ উদ্বোধন করল নয়াবাজার আদর্শ ঐক্য পরিষদ
শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

আজিমপুর কবরস্থানে চোখের পানি ফেলছেন স্বজনরা

প্রতিবেদক::
আপডেট : শনিবার, ১ আগস্ট, ২০২০

কেউ দাঁড়িয়ে বিড়বিড় করে সুরা পড়ছে, কেউবা কোরআনের আয়াত পড়ছে। কেউ দুই হাত তুলে মহান আল্লাহর দরবারে মোনাজাত করছেন। আবার কেউ নীরবে চোখের পানি ফেলছেন।

১ জুলাই মুসলিমদের বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহার দিন সকাল দশটায় রাজধানীর অন্যতম বৃহৎ আজিমপুর পুরাতন কবরস্থানে এ দৃশ্যপট চোখে পড়ে। ঈদুল আজহার দিনে সকালেই স্বজনের কবর জিয়ারত করতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে নারী-পুরুষ, শিশুরা ছুটে আসেন।

কেউ এসেছেন বাবা-মা, কেউবা স্বামী-স্ত্রী। আবার কেউ শ্বশুর শাশুড়ি কিংবা নিকটাত্মীয় কারও কবর জিয়ারত করতে। ঈদের দিন উপলক্ষে উত্তর ও দক্ষিণ দিকের গেট খুলে দেয়া হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, দু’দিকের গেট দিয়ে মানুষ কবরস্থানে প্রবেশ করছেন। আগতদের অনেকেই স্ত্রী কিংবা সন্তানদের সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন। সবাই যার যার মতো স্বজনদের কবরের পাশে গিয়ে বেশ কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকছেন।

রাজধানীর মগবাজারের বাসিন্দা গৃহবধূ সোনিয়া আক্তার ছেলেদের সঙ্গে নিয়ে স্বামীর কবর জিয়ারত করতে এসেছেন। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, গত বছরের এ দিনে স্বামী সম্পূর্ণ সুস্থ ছিলেন। পরবর্তীতে তার লিভারের সমস্যা দেখা দিলে কয়েক মাসের মধ্যেই মৃত্যুবরণ করেন। স্বামীর অনুপস্থিতিতে প্রতিদিন প্রতিটি মুহূর্ত তাকে ভীষণ কাঁদায় বলে জানান।

রাজধানী ওয়ারীর বাসিন্দা শরীফ আহমেদ তার দুই ছোট ভাইকে নিয়ে মায়ের কবর জিয়ারতে এসেছেন। কবরস্থানের ভেতরে মাঝামাঝি এসে কবরটি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। আলাপকালে তিনি বলেন, পাঁচ বছর আগে তার মা মারা যান। কবরস্থানের সংস্কার কাজের ফলে যে গাছটি দেখে মায়ের কবর চিনতাম। সে গাছটি কেটে ফেলার কারণে এখন নির্দিষ্ট করে মায়ের কবর কোনটি তা বুঝতে পারছেন না। তাই আশপাশে দাঁড়িয়েই মার জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করছেন বলে জানান।

আজিমপুর কবরস্থানের গোরখোদক মোস্তফা জানান, প্রতিবছর দুই ঈদের দিনে কবরস্থানে মানুষের ঢল নামে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত হাজার হাজার মানুষ কবর জিয়ারত করতে আসেন। তবে এবার তুলনামূলক লোকজন কম এসেছে। এদিন কবর জিয়ারতের পাশাপাশি আগত সকলেই দরিদ্র ভিক্ষুক অন্যান্যদের দান-খয়রাত করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর::