শিরোনাম::
কক্সবাজার পৌরসভায় জমির বিরোধ নিয়ে ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাদের অস্ত্র মহড়া ও গুলি বর্ষণ আহত ১৫ টেকনাফের বাহারছড়ায় দুগ্ধজাত শিশু রেখে মা উধাও বিজিবি অভিযান চালিয়ে লেদা সীমান্ত থেকে সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা উদ্ধার উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব সভাপতি’র কৃতজ্ঞতা সিইএইচআরডিএফ’র বিশ্ব শান্তি দিবস উদযাপন। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হোয়াইক্যং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হবেন হেলাল সিকদার। হ্নীলায় জনগুরুত্বপূর্ণ ষ্টেশন-পুরান বাজার সড়ক দ্রুত সংস্কার দাবী। টেকনাফের রঙ্গিখালীতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত তৈয়বের দাফন সম্পন্ন ; ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতার দাবী মোবাইল চুরির অভিযোগে ‘অপু ভাই’য়ের সহযোগী গ্রেফতার যাচাই.কমে ৩৬ টাকা কেজিতে মিলবে পেঁয়াজ!
বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৫৪ অপরাহ্ন

কুতুপালংয়ে স্থানীয়দের বসতভিটার জায়গায় রোহিঙ্গা শেড নির্মাণ ও খেলার মাঠ তৈরী, প্রতিবাদ অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক; উখিয়া।।
আপডেট : শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

 

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রেজিষ্ট্রার্ড রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ক্যাম্প ইনচার্জ খলিলুর রহমান রোহিঙ্গাদের পক্ষ নিয়ে স্থানীয় গ্রামবাসীর বসতভিটার জায়গা দখল,ফলজ গাছ নির্বিচারে কর্তন,স্থানীয়দের বসতবাড়িতে কর্মরত শ্রমিকদের কাজে বাঁধাদান সহ ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ তুলে জরুরী প্রতিবাদ করেছে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় গ্রামবাসীরা।

১২ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সন্ধ্যা ৭ টার সময় কুতুপালং বাজারে একটি রেস্তোরাঁয় এ প্রতিবাদ অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন রাজাপালং
ইউনিয়ন যুবলীগের প্রভাবশালী নেতাও সাবেক ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম,ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাবেক সভাপতি নুর মোহাম্মদ মিজান,সমাজ সেবক কবির অাহমদ,আব্দুর রহমান বিশ্বাস, জাকের হোসাইন, সিরাজুল হক, মোঃ সৈয়দ ও বহু গ্রামবাসী।

তাঁরা অভিযোগ করে জানান, হামিদুল হকের বংশ পরম্পরায় ভোগদখলীয় বসতভিটায় সৃজিত সুপারী বাগান কেটে শেড নির্মাণ কাজ করছে,জানে আলম ও কালাচাঁনের জায়গা দখল করে খেলার মাঠ তৈরি করছে, নুরুল ইসলামের বসতভিটার কাজে বাঁধা প্রদান করেছে। এসব জায়গা থেকে উচ্ছেদ করা সহ প্রাননাশের হুমকি এবং মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে জেলের ভাত খাওয়াবে মর্মে বিস্তর অভিযোগ তুলেন ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীরা।কুতুপালং রেজিস্ট্রার্ড রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের ইনচার্জ খলিলুর রহমান স্থানীয়দের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে রোহিঙ্গাদের পক্ষাবলম্বন করে এসব সাংঘর্ষিক ঘটনার জন্ম দিচ্ছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা ক্ষুদ্ধ কন্ঠে অসহায় সুরে বলেছেন।

ক্ষতিগ্রস্তদের পক্ষে অচিরেই ক্যাম্প ইনচার্জের অপসারণ চেয়ে নিজেদের ভিটামাটি রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী, বিভাগীয় কমিশনার,আরআরআরসি,জেলা প্রশাসক,ইউএনও সহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে স্নারকলিপি প্রেরণ, মানববন্ধন, প্রতিবাদ সভা,প্রতিবাদী বিক্ষোভ মিছিল সহ নানা কর্মসুচী পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন বলে প্রতিবাদ সভায় জানান দেন।সংগঠিত ঘটনার আশু প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রী সহ সরকারের সংশ্লিষ্টদের আশু শান্তিপূর্ণ কার্যকর পদক্ষেপ কামনা করেছেন।

এব্যাপারে কুতুপালং রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্পের ইনচার্জ খলিলুর রহমানের মোবাইলে মন্তব্য জানার চেষ্টা করলেও মোবাইল সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর::