উখিয়ায় জোরপূর্বক বসতভিটা দখলের চেষ্টা : আহত-১ |

শেয়ার করুন-

নিজস্ব সংবাদদাতা।

কক্সবাজারের উখিয়ায় বসত ভিটার জমি জোরপূর্বক দখলের ঘটনায় বাধা দিতে গিয়ে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীর হামলায় সিএনজি চালক জাফর আলম গুরুতর আহত হয়েছে।

সোমবার (২৮ জুন) বিকাল সাড়ে ৩ টায় রত্নাপালং ইউনিয়নের পালং গার্ডেন এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় আহত জাফর আলমের স্ত্রী খালেদা বেগম বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে৷ অভিযুক্তরা হলেন, রত্নাপালং তেলীপাড়ার মোঃ শাহ জাহানের ছেলে মোঃ শামীম, মৃত কবির আহমদের ছেলে মোঃ শাহ জাহান, রশিদ আহমদের ছেলে মোঃ খোরশেদ, মেয়ে বুলবুল আক্তার, মোঃ শাহ জাহানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম ও হলদিয়াপালং ইউনিয়নের রুমখাঁ মাতবর পাড়ার ফরিদ আলমের ছেলে মোঃ সরওয়ার।

অভিযোগে জানা যায়, রত্নাপালং ইউনিয়নের পালং গার্ডেন এলাকার মোঃ শাহ জাহান অপরাপর বিবাদীদের যোগসাজশে গত কিছু দিন ধরে আহত সিএনজি চালক জাফর আলম বসত ভিটার কিছু জমি জোর দখলের পায়তারা চালিয়ে আসছিল দীর্ঘদিন থেকে। ইতিপূর্বেও জাফরকে একাধিকবার হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিলো। বসত ভিটার জমি সংক্রান্ত বিষয়ে আত্মীয় স্বজন সহ এলাকার গণ্যমান্য লোকজনের কাছে শালিস দায়ের করলেও প্রতিপক্ষরা প্রভাবশালী হওয়ায় কারো কথাকে পাত্তা দিত না। এর ধারাবাহিকতায় সকল বিবাদীরা একযোগে জাফর আলমকে প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্য ওৎপেতে থেকে জোরপূর্বক জবর দখলকারীরা দা, লাঠি, লোহার রড সহ অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে মারাত্মক ভাবে আহত করে। পরে তার শোর চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে ঘটনা স্থল থেকে বিবাদীরা পালিয়ে যায়। এসময় আহত জাফর আলমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন। সে বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

আহত জাফর আলমের ভাইপো মোঃ আলমগীর বলেন, শাহ জাহান শ্রমিক নেতা হওয়ায় এলাকার সহজ সরল মানুষের উপর সবসময় প্রভাব বিস্তার করে থাকে। সে প্রভাব বিস্তার করে আমার পূর্ব পুরুষ শত বছর ধরে বসবাস করে আসা বসত ভিটা দখলের চেষ্টা করছে।

এ ব্যাপারে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহমেদ সঞ্জুর মোরশেদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *