সীমান্তে পৃথক বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় ২ মাদককারবারি নিহত |

শেয়ার করুন-

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী উখিয়া-টেকনাফে র‌্যাব ও বিজিবির সাথে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় রোহিঙ্গাসহ দুই মাদক কারবারী নিহত হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, দুইটি দেশীয় তৈরি অস্ত্র, ১টি বিদেশী পিস্তল, বিপুল পরিমান ম্যাগাজিন ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলো উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের নলবনিয়া এলাকার বাসিন্দা জালাল আহমদের ছেলে লুৎফর রহমান প্রকাশ লুতিয়া ডাকাত (৩৮) ও টেকনাফ উপজেলার জাদি মোরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি ব্লকের বাসিন্দা বশির আহমদের ছেলে হাশেম উল্লাহ ডাকাত (৩৩)।

নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

র‌্যাব জানিয়েছে, (১৬ জুলাই) ভোররাতে টেকনাফ উপজেলার জাদি মোরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাহাড়ী এলাকায় দুই ডাকাত দলের মধ্যে গুলাগুলির খবর পেয়ে অভিযানে গেলে ডাকাতদল র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি করেন। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে গুলি করেন। গুলাগুলির এক পর্যায়ে ডাকাতদল পিছু হটতে বাধ্য হন।

ঘটনাস্থল থেকে র‌্যাব বিপুল পরিমাণ অস্ত্রসহ গুলিবিদ্ধ এক রোহিঙ্গা ডাকাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু তাকে ঘোষণা করেন।

র‌্যাব টেকনাফ ক্যাম্পে দায়িত্বরত এএসপি বিমান কুমার কর্মকার গণমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অপর দিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের নলবনিয়া নামক এলাকায় চিংড়ী ঘেরে মাদককারবারী ও বিজিবির সাথে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে লুতিয়া নামে এক মাদক কারবারী নিহত হয়।

এসময় তার কাছ থেকে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ও ১ টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র উদ্ধার করে বিজিবি। তার বিরুদ্ধে উখিয়া থানাসহ বিভিন্ন থানায় ১২ টিরও বেশি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক আলী হায়দার আল আজাদ।


শেয়ার করুন-

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *